দাম কমলো স্বর্ণের এবং রাজধানীর যেসব সড়ক,এড়িয়ে চলবেন।

দেশের বাজারে দাম কমলো স্বর্ণের । আজ (১৫ ডিসেম্বর) থেকে প্র‌তি ভরিতে এক হাজার ১৬৬ টাকা ক‌মে পাওয়া যাবে সোনা। অর্থাৎ দে‌শের বাজা‌রে ভা‌লো মা‌নের সোনা প্রতি ভ‌রির দাম ক‌মে দাঁড়াচ্ছে ৭৩ হাজার ১৩৩ টাকা। মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) রাতে সোনার নতুন দাম নির্ধারণ করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)। বাজুসের সভাপতি এনামুল হক খান ও সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাব ও বিশ্ব অর্থনীতির নানা জটিল সমীকরণে মধ্যে আন্তর্জাতিক বাজারে সোনার দাম কিছুটা নিম্নমুখী। দেশীয় বুলিয়ন মার্কেটেও পাকা সোনার দাম নিম্নমুখী। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় এনে বাজুসের সিদ্ধান্ত মোতাবেক বুধবার থেকে দেশের বাজারে সোনার দাম ভরি (১১.৬৬৪ গ্রাম) প্রতি এক হাজার ১৬৬ টাকার মত কমানো হলো।

দাম কমলো স্বর্ণের copyright free image form pixabay.com
দাম কমলো স্বর্ণের

তবে রূপা এর দাম অপরিবর্তিত হয়ে থাকবে। নতুন দাম অনুযায়ী, ভালো মানের অর্থাৎ ২২ ক্যারেট মা‌নের প্রতি ভরি সোনার দাম ৭৩ হাজার ১৩৩ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। ২১ ক্যারেটের সোনা ৬৯ হাজার ৯৮৪ টাকা, ১৮ ক্যারেটের সোনা ৬১ হাজার ২৩৬ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি সোনার দাম কমিয়ে নির্ধারণ করা হ‌য়ে‌ছে ৫০ হাজার ৯১৩ টাকা। সোনার মূল্য কমলেও রূপা আগের নির্ধা‌রিত দাম বহাল রয়েছে।

ক্যাটাগরি অনুযায়ী ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি রূপার মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে এক হাজার ৫১৬ টাকা। ২১ ক্যারেটের রূপার ভরি এক হাজার ৪৩৫ টাকা, ১৮ ক্যারেট এর এক হাজার ২২৫ টাকা আর সনাতন পদ্ধতির মধ্যে রূপার দাম ৯৩৩ টাকায় অপরিবর্তিতভাবে রাখা হ‌য়েছে। এর আগে, সর্বশেষ গত ১২ নভেম্বর ভরিতে দুই হাজার ৩৩৩ টাকা বাড়িয়ে দাম নির্ধারণ করেছিল বাজুস। যা ১৩ নভেম্বর থেকে কার্যকর হয়েছিল। আজ পর্যন্ত ওই দরেই সোনার অলংকার কেনাবেচা হয়। এ হিসাবে মঙ্গলবার ২২ ক্যারেট মা‌নের প্রতি ভরি সোনার অলংকার বিক্রি হয়েছে ৭৪ হাজার ৩০০ টাকা। ২১ ক্যারেটের সোনা ৭১ হাজার ১৫০ টাকা, ১৮ ক্যারেটের সোনা ৬২ হাজার ৪০২ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি সোনার দাম ছিল ৫২ হাজার ৮০ টাকা।

আরো জানুন:

গুরুকুল লাইভ: প্রধানমন্ত্রী আহ্বান করেছেন,প্রযুক্তির সহজলভ্য এবং পর্যাপ্ত হস্তান্তর নিশ্চিতের জন্য।

রাজধানীর যেসব সড়ক,এড়িয়ে চলবেন

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনকে ঘিরে ১৫ থেকে ১৭ ডিসেম্বর রাজধানীতে দেশি-বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধান ও সরকার প্রধানদের চলাচল থাকবে। এ সময় বিভিন্ন সড়ক বন্ধ থাকবে। গণপরিবহন এবং ব্যক্তিগত যান এসব পথের মধ্যে চলতে দেওয়া হবে না। এতে সাধারণ মানুষরা ভোগান্তি এর মধ্যে পড়তে পারেন। কখন কোন সড়ক বন্ধ থাকবে: ১৫ ডিসেম্বর যেসব পথে যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত হবে: ১৫ ডিসেম্বর সকাল ১০টার দিকে ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামবেন।

রাজধানীর যেসব সড়ক,এড়িয়ে চলবেন image collected and edited for reuse
রাজধানীর যেসব সড়ক,এড়িয়ে চলবেন

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ তাকে স্বাগত জানাতে আগেই বিমানবন্দর যাবেন। তাই আগামীকাল সকাল ৯টার পর বঙ্গভবন থেকে বিমানবন্দর যাওয়ার সড়ক একাধিকবার বন্ধ রাখা হবে। তিনি বিমানবন্দর থেকে সাভার স্মৃতিসৌধে যাবেন। এরপর দুপুরে তিনি ধানমন্ডি ৩২ নম্বর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করবেন, সেখানে গিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন। এ সময় মিরপুরের সড়কটি বন্ধ থাকবে।

এদিন বিকালে রামনাথ কোবিন্দ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। এরপর তিনি রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে বঙ্গভবনে যাবেন। এ সময় শাহবাগ, কাকরাইল, প্রেসক্লাব, রাজউক ও মৎস্য ভবন এলাকার সড়ক বন্ধ থাকবে। যেসব সড়কে ১৬ ডিসেম্বর যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত হবে ১৬ ডিসেম্বর ভোর সাড়ে ৬টায় রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাভার স্মৃতিসৌধে যাবেন। সেখানে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ঢাকায় ফিরবেন। তাদের আসা যাওয়ার এই সময় বঙ্গভবন ও গণভবন থেকে গাবতলী-সাভার সড়কে স্বাভাবিক যান চলাচল বন্ধ থাকবে। প্রধানমন্ত্রী সকাল ৮টায় গণভবন থেকে ধানমন্ডি ৩২ নম্বর যাবেন।

সেখানে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন। এরপর সকাল ৯টা ৫০ মিনিটে প্রথমে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তারপর সকাল ১০টায় যাবেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ। এসময় ফের বঙ্গভবন থেকে আগারগাঁও প্যারেড গ্রাউন্ড এবং গণভবন থেকে আগারগাঁওয়ের বিভিন্ন সড়ক বন্ধ থাকবে। অনুষ্ঠান শেষে যাওয়ার সময়ও সড়ক বন্ধ থাকবে। ১৬ ডিসেম্বর বিকাল ৩টায় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী বিশেষ অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।

এ সময় বিদেশি অতিথিরাও থাকবেন। তাদের নিরাপত্তার জন্য ফের সড়ক বন্ধ থাকবে। পুলিশ ১৭ ডিসেম্বর, যেসব সড়কে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করবে ১৭ ডিসেম্বর সকালে ভারতীয় রাষ্ট্রপতি ঢাকার রমনার কালী মন্দিরে যাবেন। সেখানে মন্দিরের সংস্কারকৃত অংশ উদ্বোধন এবং কমিটির সঙ্গে মতবিনিময় করবেন। বিকাল ৩টায় তিনি দিল্লির উদ্দেশে প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও থেকে শাহজালাল বিমানবন্দরে যাবেন। এ সময় এই সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকবে। এদিকে বিকাল ৩টায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজার অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। এ সময় বঙ্গভবন থেকে সংসদ ও গণভবন থেকে সংসদের বিভিন্ন সড়কে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করবে ঢাকা মহানগর ট্রাফিক বিভাগ।

[দাম কমলো স্বর্ণের এবং রাজধানীর যেসব সড়ক,এড়িয়ে চলবেন।]

অন্যান্য খবর সম্পর্কে জানুন:

প্রথম আলো: জাপান থেকে আসা দুই শিশু আপাতত মায়ের সঙ্গে থাকবে: আদালত

আমাদের সাথে যোগাযোগ